লেটেস্ট খবরবিনোদনভাইরাললাইফ স্টাইলরেসিপি

Susmita Roy Chakraborty: একটানা ১৫দিন কাটিয়েছেন ফুটপাতে! আজ টেলিপাড়ার জনপ্রিয় অভিনেত্রী তিনি; কীভাবে বদলালো সুস্মিতার জীবন!

Published on:

WhatsApp Group Join Now

Susmita Roy Chakraborty: ‘কথায় বলে কষ্ট করলে কেষ্ট মেলে’। ঠিক এই কথাটি নিজের জীবনের লড়াইয়ের সঙ্গে মিলে গেছে অভিনেত্রী সুস্মিতা রায় চক্রবর্তীর (Susmita Roy Chakraborty)। জীবন যুদ্ধে পিছিয়ে না গিয়ে লড়াই করলে সাফল্য মিলবেই। আর ঠিক সেই জিনিসটাই প্রমাণ করলেন এই অভিনেত্রী। নিজের জেদের কাছে হার মেনেছে বিভিন্ন প্রতিকূলতা। নিজের পায়ে দাঁড়িয়ে নিজের স্বপ্ন পূরণ করেছেন অভিনেত্রী।

WhatsApp Group Join Now

কৃষ্ণকলি, অপরাজিত অপু সহ একাধিক জনপ্রিয় সিরিয়ালের অভিনয় করতে দেখা গিয়েছে এই অভিনেত্রীকে। সুন্দরবনে বেড়ে ওঠা এই অভিনেত্রী ছোট থেকেই অভিনয় করেন। এমনকি তার শখ ছোট থেকে অভিনয় করা। কিন্তু বাবা-মা কখনোই সম্মতি ছিল না এই পেশায়। কলেজ জীবনে একপ্রকার পালিয়ে কলকাতায় এসে নিজের স্বপ্ন পূরণ করার লক্ষ্যে এগিয়ে যান তিনি।

Life Story Of Actress Susmita Roy Chakraborty:

অভিনেত্রী এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, শিয়ালদহের ফুটপাতে ত্রিপলের নীচে ১৫ দিন কাটিয়েছেন। এমনকি ফুটপাথবাসীরা যেরকম খাবার খেয়ে দিন কাটান সেই ভাবেই জীবন যাপন করেছেন তিনি। টাকার অভাবে সোনারপুর থেকে সল্টলেকে হেঁটে গিয়েছিলেন অডিশন দিতে। কথায় আছে পরিশ্রম করলে তার মূল্য ঠিকই পাওয়া যায়। তেমনি এক সময় পরিশ্রমের মূল্য আজ পাচ্ছেন অভিনেত্রী সুস্মিতা। তার স্বপ্ন ছিল নিজের রোজগারে গাড়ি বাড়ি করবেন। আজ পূরণ হয়েছে সেই স্বপ্ন। তবে অভিনেত্রীর জীবনে একটি চরম অন্ধকার দিকও রয়েছে। যা সম্পর্কে তিনি নিজের মুখেই জানিয়েছেন।

আরও পড়ুন: Aishwarya Rai Bachchan: আচমকা ঐশ্বর্যর বাড়িতে হাজির অভিষেক সহ গোটা পরিবার! একাই সবটা সামলান ঐশ্বর্য ও তাঁর মায়ের!

অভিনেত্রী জানান, যখন কৃষ্ণকলি ধারাবাহিক শুরু করেন তিনি তখন অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন। এই অবস্থাতেই শুটিং চালিয়ে গিয়েছেন। এমনকি সন্তান প্রসবের সাত দিন আগেও শুটিং করেছেন। কিন্তু সন্তান প্রসবের পর চিকিৎসকের ভুলত্রুটির জন্যই তার মৃত সন্তান প্রসব হয়। এরপর টানা দুমাস শয্যাশায়ী ছিলেন তিনি। এরপর প্রায় এক প্রকার জোর করে কাজে ফিরেছেন তিনি। বাড়িতেও একেবারেই ঘরোয়া সুস্মিতা।

বাইরে সময় কাটানোর থেকে পরিবারের মানুষদের সঙ্গে সময় কাটাতে বেশি পছন্দ করেন তিনি। শ্বশুর শাশুড়ির থেকে শুরু করে বাবা-মা, সবার কাছেই এখন গর্বের জায়গা সুস্মিতা। তার পরিবারের সকলেই সুস্মিতার উপর যথেষ্ট গর্ববোধ করেন। এভাবে নিজের স্বপ্ন পূরণের পথে এগিয়ে চলেছেন তিনি। নিজের মুখেই জানিয়েছেন আরও অনেক কাজ করা বাকি আছে তার। তার ভক্তরা তাকে ছোট পর্দার সাথে সাথে বড় পর্দা তেও দেখতে চান।

About Author
Neha Basu

বিগত প্রায় ২ বছর ডিজিটাল মিডিয়ার কাজের সঙ্গে যুক্ত। যে কোনো ধরনের জেনারেল নিউজ লেখায় পারদর্শী।