লেটেস্ট খবরবিনোদনভাইরাললাইফ স্টাইলরেসিপি

Madhumita Sarcar: শ্যুটিংয়ের ফাঁকে গোলবাড়ির কষা মাংসে মজলেন মধুমিতা! লোভনীয় ভিডিও পোস্ট অভিনেত্রীর!

Published on:

WhatsApp Group Join Now

Madhumita Sarcar: বরাবর নিজেকে কঠোর ডায়েটে রাখতে পছন্দ করেন অভিনেত্রী মধুমিতা সরকার (Madhumita Sarcar)। ইন্ডাস্ট্রিতে আসার প্রথম থেকেই তার মেদহীন ঝকঝকে চেহারা নজর কাড়ে সকলের। কিন্তু আবার তাকে চির রূগ্নী বলে দাগিয়ে দেন। যদিও মধুমিতা নিজেকে ক্যামেরার বাইরে এবং সামনে সবসময় সুন্দর ঝকঝকে রাখতে চান। আর তাই তো ভিষন নিয়ম করে খাবার খান। বাইরের তেল ঝাল মসলাযুক্ত খাবার থেকে সর্বদা নিজেকে দূরে রাখেন। তবে লোভ বিষম বস্তু তা কি আর সামলানো যায়। তেমনটাই হল মধুমিতার ক্ষেত্রে।

কষা মাংস জামাইষষ্ঠীতে:

টলিউডের এই ব্যর্থ অভিনেত্রী এবার চেখে দেখলেন পাঁঠার মাংস। পাঁঠার মাংস আর বাঙ্গালির জিভ এই দুটো লুকিয়ে রাখা খুবই মুশকিল। তাও যদি হয় জামাইষষ্ঠীর দিন। তাহলে তো কোন কথাই নেই। এই দিন ঝোল ঝাল অম্বল সবকিছু মিলেমিশে যায়। শুটিং করতে গিয়ে তাই খেতেই হয় কষা মাংস। তাও আবার যেমন তেমন মাংস নয় সে গোলবাড়ির কষা মাংস। লোভনীয় এই মাংস খেতে গিয়ে সুন্দর ভিডিও শেয়ার করে ভক্তদের খিদে পাইয়ে দিলেন অভিনেত্রী। এদিন আর কোন ডায়েট নয়, কেবল কব্জি ডুবিয়ে মাংস খাওয়া। গোলবাড়ির কষা মাংস মানেই স্বাদে গন্ধে অতুলনীয়। প্রায় ১০০ বছর ধরে তাদের ঐতিহ্যের সঙ্গে কোন আপোষ না করেই খাদ্য রসিকদের পাতে তুলে দিচ্ছেন এই কষা মাংস।

গোলবাড়িতে মধুমিতা:

শ্যামবাজারের পাঁচ মাথার মোড়ে অবস্থিত বিখ্যাত এই দোকানে পাঁঠার মাংস খাওয়ার জন্য ভিড় করেন বহু খাদ্যপ্রেমীরা। খাদ্য রসিক মধুমিতা সেই সুযোগ ছাড়লেন না। শুটিংয়ের মাঝে সাদা টপ ডেনিম জ্যাকেট এবং জিন্স পড়ে খেতে বসে পড়লেন। শুটিং সেট থেকে চলে এসেছিলেন গোলবাড়িতে। কেউ যাতে চিনতে না পারে আর বিরম্বনায় পড়তে না হয় তার জন্য টুপি দিয়ে মুখ ঢেকে রেস্টুরেন্টে মধুমিতা। এরপর তৃপ্তি করে কয়েকটা মাংসের টুকরো মুখে তুলে নিয়ে আর বসার সময় পেলেন না। এক্ষুনি চিনতে পারলে খাওয়ার দফারফা হয়ে যাবে। কিন্তু মাংসের স্বাদ কি আর ফেলে আসা যায়। তাইতো সেই মাংস প্যাক করে ছুটলেন মধুমিতা। সুন্দর এই ভিডিওটা সবার সঙ্গে শেয়ার করে লিখে দিলেন, গোলবাড়ির কষা মাংস।

আরও পড়ুন: প্রেম নিয়ে আলোচনায় ‘খড়কুটো’ অভিনেত্রী! প্রকাশ্যে প্রেমিকের পরিচয়

About Author
Adhrit Roy

বিগত প্রায় চার বছর ধরে ডিজিটাল মিডিয়ায় কাজের সঙ্গে যুক্ত। যেকোনো ধরণের জেনারেল নিউজ লেখায় পারদর্শী।