লেটেস্ট খবরবিনোদনভাইরাললাইফ স্টাইলরেসিপি

TMC MP: দিদির ঠিক পাশেই দিদি নম্বর ওয়ান সালোয়ারে দেখা গেল সায়নীকে! জয়ের পরে প্রথম তৃণমূলের সুপার ২৯

Published on:

WhatsApp Group Join Now

TMC MP: এই বছরে লোকসভা ভোটে জয়ী হবার পর জয়ী প্রার্থীদের নিয়ে রাজ্যের মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এমপিদের সঙ্গে বৈঠক করলেন। ওই বৈঠকে কে কে উপস্থিত ছিলেন? চলুন জেনে নেওয়া যাক। ঐদিন বৈঠকে সকল মহিলা প্রার্থীদের শাড়ি পড়েই দেখা গিয়েছে, সকলের নজর কেড়েছে দিদি নাম্বার ওয়ান রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়। ঐদিন রচনা কে লাল ব্লাউজ, লাল সিল্কের শাড়িতে দেখা গিয়েছে সঙ্গে গলায় হার এবং কালো ছোট দুল। চুলটাকে খোঁপা করে বেঁধে রেখেছিলেন তিনি। তাঁর পাশে সায়নী ঘোষ পরেছিলেন সবুজ রঙের চুড়িদার সঙ্গে সাদা ওড়না। চুলে খোঁপা বাঁধা।

WhatsApp Group Join Now

অন্যদিকে অভিনেত্রী জুন মালিয়া পরেছিলেন হালকা নীল শাড়ি এবং ম্যাচিং ব্লাউজ। গলায় মুক্তোর হার। শতাব্দী রায় পরেছিলেন লাল ব্লক প্রিন্টের শাড়ি এবং ম্যাচিং ব্লাউজ। অন্যদিকে পুরুষদের মধ্যে শত্রুঘ্ন সিনহাকে দেখা গেল শার্টের উপর জ্যাকেট এবং প্যান্ট পরে এবং সাদা টিশার্ট প্যান্ট পরে ছিলেন ইউসুফ পাঠান। আর দেব কালো টিশার্ট প্যান্ট পরে উপস্থিত ছিলেন। লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশের চার দিন পর এই বৈঠক বসেছিল। সেখানেই প্রথমবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা গেল এবারের নির্বাচিত ২৯ জন এমপিকে।

যাদবপুর কেন্দ্র থেকে বিপুল ভোটে জিতেছেন অভিনেত্রী সায়নী ঘোষ। অন্যদিকে সকলকে চমকে দিয়ে প্রথমবার রাজনীতির ময়দানে নেমেই জয় লাভ করেছেন রচনা, লকেট চট্টোপাধ্যায় কে পরাজিত জয়ী হয়েছেন অভিনেত্রী। ঘাটালে এবার হ্যাটট্রিক করলেন দেব। অন্যদিকে বীরভূম কেন্দ্র থেকে জয়ী হয়েছেন শতাব্দী রায়। মেদিনীপুরে জয়ী হয়েছেন জুন মালিয়া। বহরমপুরে প্রথমবার নির্বাচনে দাঁড়িয়েই অধীর রঞ্জন চৌধুরীকে হারিয়ে জিতেছেন ইউসুফ পাঠান। আসানসোল কেন্দ্র থেকে জয়ী হয়েছেন শত্রুঘ্ন সিনহা।

আরও পড়ুন: Indian Railway: এবারে এক ধাক্কায় কমতে চলেছে লোকাল ট্রেনের ভাড়া, বড় ঘোষণা করল ভারতীয় রেল কর্তৃপক্ষ

About Author
Ankana Chowdhury

নমস্কার আমার নাম অঙ্কনা চৌধুরী। আমি বিগত দু'বছর ধরে ডিজিটাল মিডিয়াতে কাজের সঙ্গে যুক্ত রয়েছি। এই দু বছরে আমি বিভিন্ন ধরনের বিষয়ের উপরে জেনারেল নিউজ লিখেছি। এবং বর্তমানে আমি অনেকটাই কাজ শিখে এই জেনারেল নিউজ লেখায় নিজেকে সাবলীল করে তুলেছি। এই কয়েক বছরে আমার অভিজ্ঞতা ভীষণই ভালো।