লেটেস্ট খবরবিনোদনভাইরাললাইফ স্টাইলরেসিপি

জনপ্রিয় শাশুড়ি-বৌমার সম্পর্কে ফাটল, সন্ধ্যাকে বৌ করে আফসোস বিজয়া মাঠানের, ফাঁস আগাম পর্ব

Published on:

বর্তমানে ‘সন্ধ্যাতারা’ (Sandhya tara) হল স্টার জলসার (Star Jalsha) একটি অন্যতম জনপ্রিয় মেগা ধারাবাহিক। খুব স্বল্প সময়ে দর্শকের প্রতিদিনের বিনোদন সঙ্গী হয়ে উঠেছে এই বাংলা সিরিয়াল (Bengali Serial)। এরই মধ্যে শাশুড়ি ও নায়কের মায়ের চরিত্র অভিনীত বিজয়া মাঠান বাংলা সিরিয়ালের দর্শকের কাছে সেরা শাশুড়ির স্থান অধিকার করে নিয়েছেন। সন্ধ্যা-বিজয়া এই শাশুড়ি-বৌমার জুটি ভীষণ প্রিয় দর্শকের। ছেলের বউ চোখের মনি শাশুড়ির।

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

‘সন্ধ্যাতারার’ সকল দর্শকই জানেন, বিজয়া মাঠান সন্ধ্যাকে নিজেই পছন্দ করে ঘরের বৌমা করে এনেছেন। ছেলে আকাশনীল নিজের অপছন্দ সত্ত্বেও সন্ধ্যাকে বিয়ে করেছে শুধুমাত্র মায়ের কথায়। ঘরে আনার পর থেকে সন্ধ্যাকে নিজের মেয়ের মতোই আগলে রাখেন তার শাশুড়ি-মা বিজয়া মাঠান। এমনকি বউমার সাথ দিতে, প্রয়োজনে ছেলেকে শাসন করতে দ্বিধা বোধ করেননা তিনি।

Sandhaytara
Sandhaytara

নতুন পর্বে দেখা যাচ্ছে, পিসি ঠাকুমার ফাঁদে পা দিয়ে সন্ধ্যা, নেশার ঘোরে নিজের স্বামী আকাশনীলের বন্ধুদের সামনে মাতলামি করে ফেলে। বৌমারে কার্যকলাপ দেখে চমকে যায় বিজয়া মাঠান। সন্ধ্যাকে বকাবকি না করলেও এই প্রথমবার হতাশ হয় তার উপর বিজয়া মাঠান। মেজো জা-য়ের কাছে সে আক্ষেপ নিয়ে জানায়, ভুল করে ফেলেছে সে নিজের ইচ্ছেকে গুরুত্ব দিয়ে। পছন্দের বৌমা ঘরে আনাটা সঠিক সিদ্ধান্ত হয়নি বলে জানিয়েছেন তিনি।

দূর থেকে দাঁড়িয়ে এর সবটাই শোনে সন্ধ্যা। সে বুঝতে পারে আগের রাতের বাড়াবাড়ির জন্যই এই আফসোস তার শাশুড়ি-মার। নিজের ভুল বুঝতেই সোজা বিজয়া মাঠানের পায়ে গিয়ে পড়ে সে, ক্ষমার আসায়। কিন্তু সেই মুহূর্তে অবাক করিয়ে দিয়ে বৌ-মার ভুল ভাঙ্গে নায়কের মা, বলেন যে সন্ধ্যা ক্ষমা চাওয়ার মত কিছুই করেনি, উল্টে সে নিজেই সন্ধ্যার কাছে ক্ষমা প্রার্থী।

অনেকেই ভেবেছিলেন বিজয়া মাঠানের আক্ষেপের কারণ হয়তো তার ছেলের বউ-এর ব্যবহার। সন্ধ্যার মত গ্রামের মেয়েকে বউ করে আনায়, হয়তো তার আক্ষেপের কারণ। তবে এর কোন কিছুই নয়। তিনি উল্টে লজ্জিত পিসি ঠাকুরমার কাজের জন্য। দর্শকের দৃশ্যে, বিজয়া মাঠানের এই ভিন্ন ব্যবহার তাকে সর্বসেরা শাশুড়ি করে তোলা তোলে। তিনি এক আধুনিক শাশুড়ি, তার সর্বদা এভাবে বৌ-মার পাশে দাঁড়ানো সত্যিই প্রশংসনীয়।

About Author
Adhrit Roy

বিগত প্রায় চার বছর ধরে ডিজিটাল মিডিয়ায় কাজের সঙ্গে যুক্ত। যেকোনো ধরণের জেনারেল নিউজ লেখায় পারদর্শী।

Leave a Comment