প্রতি রাতে বৈবাহিক শা’রী’রিক অ’ত্যা’চার! শিমুলের অভিযোগে জেলে পরাগ, টিভির আগেই ফাঁস তুলকালাম পর্ব

WhatsApp Channel Join Now
Google News Follow

দাম্পত্য কলহ বৈবাহিক ধর্ষণ কিংবা বধূ নির্যাতনের মত ঘটনাগুলি আমাদের সমাজে প্রতিনিয়তই ঘটছে তেমনই এক রূঢ় বাস্তবের কাহিনী জি বাংলার সিরিয়ালে উঠে এসেছে, যার নাম কার কাছে কই মনের কথা। একটি মেয়ের জীবন কাহিনী কিভাবে ঘাত প্রতিঘাতের মধ্যে দিয়ে তার জীবন এগিয়ে চলেছে সেটাই তুলে ধরা হয়েছে।প্রথম দিন থেকেই আমরা তার সাক্ষী থেকেছি।

শিমুল পরাগের থেকে প্রতিরাতে বৈবাহিক ধর্ষণের শিকার হয় যে কারণে শিমুল তার ননদ পুতুলের ঘরে রাত কাটায় কিন্তু তাঁর শাশুড়ি মধুবালার অনুরোধে সে সমস্ত কিছু মিটমাট করে নিতে পরাগের ঘরে যায়। পরাগ যে শোধরাবার পাত্র নয় সেদিন রাত্রেও তার প্রমাণ মেলে। শিমুলের ওপর অত্যাচার করে এমনকি শিমুলের মাথা ফাটিয়ে দেয়। এমতাবস্থায় শিমুল পরাগকে উচিত শিক্ষা দেওয়ার জন্য পুলিশের দারস্ত হয়। থানায় গিয়ে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে।

প্রতি রাত্রে যেভাবে তাঁর স্বামীর হাতে শিমুল নিগৃহীত হয় তার বিচার চায় সে এবং আগামী দিনে দেখা যাবে পুলিশ পরাগকে নিয়ে যায় শিমুলের অভিযোগের ভিত্তিতে। এমতাবস্থায় পরাগের আগের চাকরিটিও আর থাকবে না। সব থেকে চাঞ্চল্যকর বিষয়টি হল শিমুলের এই ঘুরে দাঁড়ানোর লড়াইয়ে এবার সে পাশে পাবে তাঁর শাশুড়ি মধুবালাকে, যে এতদিন বৌমার বিরুদ্ধে কথা বলেছে আজ সে বৌমার পাশে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে তাঁর সুবিচারের ব্যবস্থা করবে।

https://youtu.be/1jSc7ozt2-o

নিজের ছেলের করা জঘন্য অপরাধকে তিনিও যে মেনে নেবেন না তা স্পষ্ট করে জানিয়ে দিতে চান মধুবালা। তাঁর জীবনে হওয়া অত্যাচার তিনি চান না তার বৌমা সহ্য করুক। এটিও বেশ স্পষ্ট, খুশি সকল দর্শক। আগামী দিনে কি হতে চলেছে তা দেখার জন্য মুখিয়ে রয়েছে সকলে।

আরও পড়ুন:দাদাগিরির মঞ্চে নাটু নাটু গানে নাচ করলেন দাদা! সৌরভের নাচের ভিডিও দেখে প্রশংসা নেটিজেনদের