লেটেস্ট খবরবিনোদনভাইরাললাইফ স্টাইলরেসিপি

লক্ষীর ভান্ডারের আদলের শুরু হল নতুন প্রকল্প! মাসে মাসে মহিলাদের একাউন্টে ঢুকবে এক থোক টাকা!

Published on:

WhatsApp Group Join Now

Lakshi Bhandar is the beginning of a new project! A lump sum of money will enter the women’s account every month!: জনসাধারণের কথা মাথায় রেখে প্রায়ই পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একাধিক প্রকল্প নিয়ে আসেন তাঁদের উদ্দেশ্যে। ইতিমধ্যে সকল শ্রেণীর মানুষের জন্য একাধিক প্রকল্প শুরু হয়ে গিয়েছে। যেমন পড়ুয়াদের জন্য যেমন চালু করা হয়েছে সবুজ সাথী, কন্যাশ্রী তেমনই বাকিদের জন্যও চালু করা হয়েছে ঐক্যশ্রী, বেকার ভাতা, রূপশ্রী ইত্যাদি। তবে এই সব প্রকল্পের মাঝে মহিলাদের উন্নয়নে বিশেষ নজর দিয়েছেন তিনি।

আর তাই রাজ্য সরকারের চালু করা একটি স্কিম ‘লক্ষ্মীর ভান্ডার’ বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। আর এর মাধ্যমেই পশ্চিমবঙ্গের কোটি কোটি মহিলা উপকৃত হন। মহিলাদের জন্য বহুল প্রচলিত উদ্যোগ লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প মূলত দুটি শ্রেণির মধ্যে হয়ে থাকে। এই প্রকল্পের অধীনে তফসিলি জাতি এবং উপজাতির মহিলারা প্রতি মাসে আগে ১০০০ টাকা করে পেতেন তবে এইমুহুর্তে তাঁরা ১৫০০ টাকা করে পান।

অন্যদিকে সাধারণ শ্রেণির মহিলারা প্রতি মাসে ৫০০ টাকা করে আগে পেত, তবে বর্তমানে এখন ১০০০ টাকা করে আর্থিক সাহায্য পান সরকারের তরফে। এবার এই মডেলকে নজরে রেখেই আরেক রাজ্যে মহিলাদের জন্য আনা হচ্ছে দুর্দান্ত প্রকল্প।

এবার সামনে এলো লক্ষ্মীর ভান্ডারের আদলে তৈরি নয়া প্রকল্প। সূত্রের খবর, বিধানসভা ভোটের আগে এবার মহারাষ্ট্রেও বাংলার লক্ষ্মীর ভান্ডারের আদলে শুরু হতে চলেছে এই প্রকল্প৷ গতকাল অর্থাৎ শুক্রবার মহারাষ্ট্রে বিধানসভা বাজেট পেশ করা হয়েছিল। আসলে এটাই ভোটের আগে শেষ বাজেট একনাথ শিন্ডে সরকারের।

WhatsApp Group Join Now

আর এই বাজেট পেশ করতে গিয়ে নতুন এই প্রকল্পের ঘোষণা করেছেন মহারাষ্ট্রের উপমুখ্যমন্ত্রী তথা অর্থমন্ত্রী অজিত পাওয়ার৷ বলা হয় ২১ থেকে ৬০ বছর বয়সি মহিলাদের জন্য মাসিক ১৫০০ টাকার ভাতা ঘোষণা করতে চলেছে একনাথ শিন্ডে সরকার৷ এই খবর সামনে আসার পর এই খুশিতে আত্মহারা মহিলারা নয়া প্রকল্পের ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে অজিত পাওয়ার জানিয়েছেন, এই নয়া প্রকল্পের নাম হবে ‘মুখ্যমন্ত্রী মাঝি লড়কি বহিন যোজনা’

আরও পড়ুন: খুশির খবর! EPFO করলো বিরাট ঘোষণা! জুলাই মাসেই অ্যাকাউন্টে ঢুকবে বিরাট টাকা

যা জুলাই মাস থেকেই চালু হতে চলেছে৷ আর এই প্রকল্প চালানোর জন্য বছরে ৪৬ হাজার কোটি টাকা খরচ করতে চলেছে মহারাষ্ট্র সরকার। শুধু তাই নয়। কয়েকটি নির্দিষ্ট পরিবারদের বছরে তিনটি করে রান্নার গ্যাস বিনামূল্যে দেওয়া হতে চলেছে পাশাপাশি রাজ্যের করের হার কমিয়ে পেট্রোল এবং ডিজেলের দাম কমানোরও উদ্যোগ নিয়েছে মহারাষ্ট্র সরকার।

About Author
Adhrit Roy

বিগত প্রায় চার বছর ধরে ডিজিটাল মিডিয়ায় কাজের সঙ্গে যুক্ত। যেকোনো ধরণের জেনারেল নিউজ লেখায় পারদর্শী।