লেটেস্ট খবরবিনোদনভাইরাললাইফ স্টাইলরেসিপি

“রিয়েলিটি শোতে যাওয়ার জন্য গান শিখবেন না”, সারেগামাপার প্রতিযোগী হয়েও, কেন এমন বললেন জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী প্রীতম রায়

Published on:

WhatsApp Group Join Now

Pritam Roy: আজকাল টেলিভিশনের পর্দায় রিয়েলিটি শো গুলির সংখ্যা দিনে দিনে বাড়ছে। যার ফলে বর্তমানে অনেক বাবা মায়েদের চিন্তাধারা তৈরি হচ্ছে নিজের সন্তানকে নাচ, গান শেখানো গেলে তারা রিয়েলিটি শোতে যাওয়ার সুযোগ পাবে। সেখান থেকে নাম, যশ, খ্যাতি অর্জন করবে সন্তানরা। সন্তানকে প্রপার প্রশিক্ষণ না দিয়েই স্টেজে তুলে দেওয়ার প্রবণতাও কম নয়। কিন্তু এই পদ্ধতি কি আদেও ঠিক? এই বিষয়ে এবারে মুখ খুললেন জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী প্রীতম রায়।

প্রীতম (Pritam Roy) এদিন সোশ্যাল মিডিয়ায় কিছু টিপস শেয়ার করেন আগামী দিনের ভবিষ্যৎ শিল্পীদের উদ্দেশ্যে।। সেখানে তিনি লেখেন, ‘বাচ্চাকে স্টেজে উঠিয়ে গান না গাইয়ে, সঠিক চর্চায় আবদ্ধ করুন। শখে আর যাই হোক অন্তত গান বাজনা হয় না, সেটা বয়সের সাথে আপনি এবং আপনার সন্তানকে বুঝে দিন। ২) শুধুমাত্র রিয়ালিটি শোতে গাওয়ার বা সুযোগ পাওয়ার জন্য গান শেখানো বন্ধ করুন। ৩) সঠিক গুরু নির্বাচন করুন যে গান তোলানোর বদলে ভিত শক্ত করার পেছনে সময় দেয়। ৪) নিজের বাচ্চাকে কিশোর, লতা, রফি, আশা ভাবা বা বলা বন্ধ করুন। ৫) টাকা রোজগার করার জন্য গান শেখা বন্ধ করুন।

আপনি সঠিক তৈরি হলে আপনাকে টাকা রোজগারের কথা ভাবতে হবে না বরং তা নিজে নিজেই আপনার রোজগারের মাধ্যম হয়ে যাবে। ৬) গান গাইতে পারলেই সে শিক্ষিত শিল্পী এটা ভাবা বন্ধ করুন। সবসময় সঙ্গীতের ছাত্র হিসাবে নিজেকে গ্রহণ করুন। একজন সঙ্গীত শিল্পীর একদিনের রোজগার, মাস তো ছেড়েই দিলাম। তাই অযথা জিজ্ঞেস করবেন না যে গান ছাড়া আর কী করেন।’

আরও পড়ুন: Gold Price Today: সপ্তাহের মাঝে দাম পড়ল সোনার! কত টাকায় বিকোচ্ছে হলুদ ধাতু?

টিপসগুলো সত্যি মন জয় করে নিয়েছে প্রত্যেকের। অসংখ্য মানুষ ওই দিন প্রীতমের ওই পোস্ট শেয়ার করেছেন, তাকে সহমত জানিয়েছেন। আসলেই বর্তমান সমাজটা এমন জায়গায় এসে দাঁড়িয়েছে যারা শিল্পটাকে রোজগারের মাধ্যম হিসেবে বেছে নিচ্ছে। এই চিন্তাধারা বদলালে তবেই একজন প্রকৃত শিল্পীর হয়ে ওঠা যাবে।

About Author
Ankana Chowdhury

নমস্কার আমার নাম অঙ্কনা চৌধুরী। আমি বিগত দু'বছর ধরে ডিজিটাল মিডিয়াতে কাজের সঙ্গে যুক্ত রয়েছি। এই দু বছরে আমি বিভিন্ন ধরনের বিষয়ের উপরে জেনারেল নিউজ লিখেছি। এবং বর্তমানে আমি অনেকটাই কাজ শিখে এই জেনারেল নিউজ লেখায় নিজেকে সাবলীল করে তুলেছি। এই কয়েক বছরে আমার অভিজ্ঞতা ভীষণই ভালো।