লেটেস্ট খবরবিনোদনভাইরাললাইফ স্টাইলরেসিপি

West Bengal School Update: আর চলবে না ক্লাসে ফাঁকি দেওয়া! কড়া ব্যবস্থা রাজ্য সরকারের! কী নতুন নিয়ম জারি করল রাজ্য সরকার?

Published on:

West Bengal School Update: প্রত্যেকটি শিশুর জীবনে স্কুল জীবনটা এমন একটি পর্যায় যার গুরুত্ব অপরিসীম। জীবনের ১৮ বছর এই স্কুলেই তৈরি হয় মানুষের শিক্ষাজীবনের ভিত। বর্তমান যুগে প্রতিযোগিতা এখন চূড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছেছে, প্রত্যেক বাবা-মায়ের স্বপ্ন তাদের ছেলে মেয়ে সবথেকে ভালো স্কুলে পড়াশোনা করবে।তাই প্রত্যেকেই চাইছেন তাদের সন্তানকে সেরা শিক্ষা দিয়ে পাঁচজনের একজন করে তুলতে।

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

কিন্তু স্কুলে ভর্তি করার পরও প্রত্যেক বাবা-মায়ের নিয়মিত সন্তানের পড়াশুনা বা স্কুল যাওয়া সম্পর্কে নজর রাখা সম্ভব হয়ে ওঠেনা। সেই কারণে অনেক সন্তান সেই সুযোগ নিয়ে বিভিন্ন খারাপ কাজে জড়িয়ে পড়া, স্কুলে না গিয়ে ঘুরতে যাওয়া ইত্যাদি অনেক কিছু করে থাকে। এইসব নিয়ে অভিভাবকদের চিন্তা লেগেই থাকে। এই সব কথা মাথায় রেখে পশ্চিমবঙ্গ সরকার অনেক দিক বিবেচনা করে একটি নতুন প্রক্রিয়া আনতে চলেছে।

West Bengal School Digital Attendence:

পশ্চিমবঙ্গ সরকার এবার থেকে ডিজিটাল অ্যাটেনডেন্স প্রক্রিয়া শুরু করেছে রাজ্যের স্কুলগুলিতে (West Bengal School)। জানা যাচ্ছে কিউয়ার কোড অ্যাটেন্ডেন্স পদ্ধতিতে রাজ্যের স্কুলগুলিতে হাজিরা প্রক্রিয়া চালু হবে। এই পদ্ধতির মাধ্যমে অভিভাবকরা খুব সহজেই জানতে পারবেন যে তাদের বাড়ির ছেলেমেয়ে স্কুলে গেছে কিনা।এই নতুন পদ্ধতির মাধ্যমে পড়ুয়ারা স্কুলে ঢুকলে ও স্কুল থেকে বেরোলে অভিভাবকরা এসএমএসের মাধ্যমে পেয়ে যাবেন সেই তথ্য। রাজ্যের বিভিন্ন সরকারি ও সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত স্কুলগুলিতে এই প্রক্রিয়াই চালু হওয়ার কথা চলছে।ডিজিটাল অ্যাটেনডেন্স-এর মাধ্যমে স্কুলের কাছে থাকবে পড়ুয়াদের হাজিরার রেকর্ড।

আরও পড়ুন: Nusrat Jahan: মাতৃ দিবসে খুদের মুখ প্রকাশ্যে আনলেন নুসরত; কার মতো দেখতে হলো খুদে ঈশানকে!

এই পদ্ধতিতে আইডেন্টি কার্ড স্ক্যান করাতে হবে স্কুলে ঢোকার সময় এবং বেরোনোর মুহূর্তেও। সেই কিউআর স্ক্যান করলেই তথ্য চলে যাবে অভিভাবকদের কাছে। ইতিমধ্যেই ডিজিটাল অ্যাটেনডেন্স প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে নদিয়া, দক্ষিণ ২৪ পরগনার সুন্দরবন, হাওড়ার বেশ কিছু স্কুলে। সাম্প্রতিক কালে ডিজিটাল অ্যাটেনডেন্স পদ্ধতি শুরু করা হয়েছে কলকাতার সরকারি স্কুল (West Bengal School) যাদবপুর বিদ্যাপীঠে।

শিক্ষা দপ্তর এর আগে রাজ্যের সমস্ত স্কুলে ইন্টারনেট সংযোগের উদ্যোগ নেয়। রাজ্যের সমস্ত স্কুলে ইন্টারনেট পরিষেবা চালু হয়ে গেলে এই কিউআর কোড ভিত্তিক ডিজিটাল অ্যাটেনডেন্স প্রক্রিয়া চালু হয়ে যাবে। এবার দেখার বিষয় এই প্রক্রিয়া কতটা কার্যকর হচ্ছে। এ ছাড়াও সূত্রানুসারে জানা যাচ্ছে সময়ের সাথে সাথে পড়ুয়াদের সুরক্ষার জন্য নানান পদ্ধতি আনতে চলেছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার।

About Author
Adhrit Roy

বিগত প্রায় চার বছর ধরে ডিজিটাল মিডিয়ায় কাজের সঙ্গে যুক্ত। যেকোনো ধরণের জেনারেল নিউজ লেখায় পারদর্শী।