লেটেস্ট খবরবিনোদনভাইরাললাইফ স্টাইলরেসিপি

Zee Bangla Serials: পলাশের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দেবে পরাগ! অন্যদিকে রাইয়ের জীবনে আসবে নয়া মোড়! টানটান উত্তেজনায় ভরপুর জি বাংলার দুই মেগা

Published on:

Zee Bangla Serials: স্টার জলসা (Star Jalsa) এবং জি বাংলার (Zee Bangla) টিআরপি লিস্ট (TRP) একে অপরের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলে। দর্শকদের বিচারে কে থাকবে এগিয়ে? তাই নিয়ে চলতেই থাকে রেষারেষি। এবার এক জোড়া ধামাকা নিয়ে আসছে জি বাংলা। পরপর টানটান দুই পর্ব। চমকে মোরা এক ঘন্টা। কার কাছে কই মনের কথা (Kar kache koi moner kotha) এবং মিঠিঝোড়া (Mithi jhora) দুই ধারাবাহিকে দেখানো হবে এক নতুন টুইস্ট। ইতিমধ্যেই দুই ধারাবাহিকের গল্প এগিয়ে চলেছে তাদের নিজস্ব গতিতে। কার কাছে কই মনের কথা নিয়ে দর্শকদের নানান রকম অভিযোগের পরেও সগৌরবে চলছে এই ধারাবাহিক। অন্যদিকে মিঠিঝোড়া ধারাবাহিকে নায়িকা অর্থাৎ রাইপূর্ণার জীবনে নতুন কেউ আসুক বারবার মনেপ্রাণে চেয়েছেন দর্শকরা।

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

Zee Bangla New Twist In Kar kache Koi Moner Katha & Mithi jhora:

একদিকে যখন কার কাছে কই মনের কথা ধারাবাহিকে দেখা যাচ্ছে নিজের দাদাকে খুন করার চক্রান্ত করছে ভাই পলাশ এবং তার বউ প্রতীক্ষা ঠিক সেই সময় নিজের স্বামীর পাশে এসে বারবার ঢাল হয়ে দাঁড়াচ্ছে শিমুল। অন্যদিকে পরাগ স্মৃতিভ্রংশের অভিনয় করলেও সে যে আসলে শিমুলকে বাঁচাতে চায় এবং তাকে কতটা ভালোবাসে তার প্রমাণ পাচ্ছেন দর্শক। শিমুল কিছুটা আন্দাজ করতে পেরেছে তাকে নানান বিপদ থেকে বাঁচাতে চাইছে তার স্বামী। কে কে তাকে বারবার পৃথিবী থেকে সরিয়ে দিতে চেয়েছে সেটা বেশ ভালোভাবে টের পেয়েছে শিমুল। এবার এই ষড়যন্ত্র গরালো আদালতে।

পরাগকে খুন করার মিথ্যা মামলায় শিমুলকে ফাঁসিয়ে দিতে চাইছে পলাশ এবং প্রতীক্ষা। আদালতে উকিলের তৎপরতায় প্রায় জেতার পথে পলাশ। ঠিক সেই সময় পর্দা ফাস করবে তার দাদা পরাগ। আদালতে আমি সাক্ষী দেব! অন্যদিকে শিমুলের কপালে চিন্তার ভাঁজ! টানটান উত্তেজনা নিয়ে সোম থেকে শুক্র কাটবে তা বলাই বাহুল্য। এই কয়েকটা দিনে আদৌ কি পলাশের স্বরূপ সবার সামনে আসবে। আবারো কি বিশ্বাস এবং ভরসা করবে শিমুল পরাগ একে অপরকে।

আরও পড়ুন: Srabanti Chatterjee: ছেলের লিভইনে বাধা নেই মায়ের! অকপট অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চ্যাটার্জী

অন্যদিকে মিঠিঝোড়া ধারাবাহিকে চক্রান্তকারী সুদীপ্তর হাত থেকে রেহাই পেয়েছে রাই। নিজেকে সে প্রমাণ করেছে। কিন্তু বারবার অনির্বাণ তার ক্ষমা স্বীকার করে রাইয়ের কাছে ফিরে আসতে চাইলেও সে তাকে প্রত্যাখ্যান করেছে। অনির্বাণের বিদেশে চলে যাওয়ার খবর পেয়ে ছুটে আসে রাই তাকে অনুরোধ করে সে যেন থাকে। কেন তাকে আটকাচ্ছে রাই এত দুঃখ দেওয়ার পরেও? মুখোমুখি প্রশ্ন করে অনির্বাণ। নিরুত্তর রাই। পুরনো ভালোবাসাকে হারিয়ে এবার নতুন করে বাঁচতে শিখবে কি রাই? একজন সত্যিকারের মনের মানুষ পাবে? সবটা জানতে চোখ রাখতে হবে জি বাংলায়! পরপর দুই দুর্ধর্ষ পর্ব দেখে যে টিভির সামনে থেকে নড়তে পারবেন না দর্শকরা সেটা বলা যায়।

About Author
Neha Basu

বিগত প্রায় ২ বছর ডিজিটাল মিডিয়ার কাজের সঙ্গে যুক্ত। যে কোনো ধরনের জেনারেল নিউজ লেখায় পারদর্শী।