লেটেস্ট খবরবিনোদনভাইরাললাইফ স্টাইলরেসিপি

দুশ্চরিত্র, অযোগ্য স্বামী অতীত! শিমুলের জীবনে আসছে নতুন নায়ক, ফাঁস ‘কার কাছে কই মনের কথা’ মহাধামাকা পর্ব

Updated on:

পশ্চিমবঙ্গের দর্শকের কাছে প্রতিটি সিরিয়ালই একটা ইমোশন। বর্তমানে দর্শকদের কাছে জি বাংলা চ্যানেলের ‘কার কাছে কই মনের কথা’ Kar Kache Koi Moner Kotha সিরিয়ালটি অতি পছন্দের একটি সিরিয়াল হয়ে উঠেছে। তবে প্রথমে এই সিরিয়ালটির গল্পকে কেন্দ্র করে সমালোচনায় মেতে উঠেছিলেন দর্শকরা।

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

তবে ধীরে ধীরে গল্পের ট্র্যাকে আসছে কিছু পরিবর্তন। শ্বশুরবাড়িতে অত্যাচারিত শিমুল এবার প্রতিবাদী হতে শিখেছে। তবে আরও বড় ধামাকা টুইস্ট অপেক্ষা করে রয়েছে দর্শকদের জন্য। প্রসঙ্গত, সম্প্রতি এক এপিসোড অনুসারে শ্বশুরবাড়িতে অপমানিত হয়ে শিমুল বাপের বাড়িতে চলে আসে। কিন্তু নিজের বাড়ি এসে তার জায়গা হয় না। শিমুলের দাদারা তাদের  বোনকে বোঝা ভাবতে থাকেন।

পরবর্তীকালে, আবার দেখা যায় শিমুল তার শ্বশুরবাড়িতে আর ফিরে যেতে চায় না। তাই সে তার মায়ের থেকে কিছু সময় চেয়ে নেয়‌। বিয়ের আগে সম্ভব না হলেও বিয়ের পর অন্তত সে চাকরির জন্য চেষ্টা করবে, এটাই তার বাসনা। শিমুল এখন প্রাণপণ চেষ্টা করছে একটা চাকরির জন্য। বাপের বাড়ি থেকে সে বন্ধুদের সঙ্গে দেখা করতে যায়। আর সেখানেই তার প্রাক্তন প্রেমিক শতদ্রু এসে হাজির। শতদ্রু শিমুলকে বলে দিল্লি থেকে কলকাতা এসেছে সে। শিমুলের সঙ্গে দেখা হতেই সে বলে, শুনলাম তুই নাকি কাজের খোঁজ করছিস, “আমার অফিসে একটা ইন্টারভিউর ব্যবস্থা করে দিতে পারি।” কিন্তু এই সময় চাকরী না থাকার সত্বেও শিমুল তা না করে দেয়।

Kar Kache Koi Moner Kotha
Kar Kache Koi Moner Kotha

আর উত্তর দিয়ে শতদ্রুকে শিমুল বলে, “ওই চাকরিটা আমি করতে পারব না। লোকে আমার চরিত্রে কলঙ্ক দেবে”। শিমুল চাকরির প্রস্তাব ফিরিয়ে দেয় কারণ শতদ্রুর সঙ্গে তার সম্পর্কের কথা যদি জানাজানি হয়ে যায় সেই ভয় পেয়ে। শতদ্রু শিমুলকে বলে, “আমি জানিনা আমার অপরাধটা কোথায়। তোকে পাঁচ বছর অপেক্ষা করতে বলে কি খুব অপরাধ করে ফেলেছি? শিমুল বলে, “যেখানে আমার কাছে পাঁচ দিনও অপেক্ষা করার সময় ছিল না সেখানে তুই আমাকে পাঁচ বছর দেখিয়েছিলি। আর এখন তোর অফিসে চাকরি দিয়ে বদনামের ভাগী করতে চাইছিস?” শিমুলের শতদ্রুর উপর রাগ রয়েছে কারণ বিয়ের আগে তাকে সব থেকে বেশি প্রয়োজন কিন্তু তাকে তখন সে পাইনি ।

পরাগকে বিয়ে করতে হয় একপ্রকার বাধ্য হয়েই শিমুলকে। এখন তারপরই তার এই পরিণতি হয়েছে। গল্পে শতদ্রুর এন্ট্রিতে দর্শকরা বেশ উৎসাহিত। কারণ স্বামী হিসেবে পরাগ ভীষণই অযোগ্য। তাই শিমুলের জীবনে যদি নতুন নায়কের প্রবেশ হয় তাহলে গল্প নতুন মোড় নেবে। শিমুলকে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়ার পর পরাগ এখনও তাকে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য আসেনি। এদিকে আবার দেখা যায় শিমুল উধাও হয়ে গিয়েছে। শিমুল এর খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না দেখে পুলিশের কাছে যাওয়ার কথা ভাবে তার বন্ধুরা। এবার কোন দিকে গল্পের মোড় ঘুরবে দেখা যাক !!

About Author
Adhrit Roy

বিগত প্রায় চার বছর ধরে ডিজিটাল মিডিয়ায় কাজের সঙ্গে যুক্ত। যেকোনো ধরণের জেনারেল নিউজ লেখায় পারদর্শী।

Leave a Comment