লেটেস্ট খবরবিনোদনভাইরাললাইফ স্টাইলরেসিপি

Neem Phooler Madhu: পর্ণাকে মারতে ফের মরণ কামড় ইশার! নিম ফুলের মধু ধারাবাহিকে নয়া মোড়

Published on:

Neem Phooler Madhu: মৃ-ত্যু পথযাত্রী নিম ফুলের নায়িকা পর্না। তবুও তাকে শেষ করে দেওয়ার বাসনা ইশার মনে। ওই যে কথায় বলে না, স্বভাব যায় না ম’লে! দত্ত বাড়ির ভাঙ্গনের রহস্য ফাঁস করে ফেলেছিল পর্না। সে জানতে পেরে যায় পিছন থেকে তাদের বাড়িতে ছুরি মেরেছে ইশা। সুইটি নামের মেয়েটিকে পাঠিয়েছেও সে। সুইটিকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে গিয়েই ধরা পড়ে যায় মৌমিতা এবং অয়নের কারসাজি। নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করতে মরিয়া হয়ে ওঠে মৌমিতা। সে এক প্রকার জোর করে প্রমাণ করতে চায় কিছুই জানেনা। আর সেই সময়ই ঘটে যায় বিপদ। অসাবধানতাবশত পর্নাকে ঠেলা মারতেই ছাদ থেকে পড়ে যায় সে। রক্তক্ষরনে অজ্ঞান হয়ে যায় পর্না।

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

New Twist In Neem Phooler Madhu:

তাকে তড়িঘড়ি উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে। চিকিৎসক জানিয়ে দেন অবিলম্বে অপারেশন করতে হবে নইলে বাঁচার কোন সুযোগ নেই। এদিকে পর্নার এই বিপদের সময় হাত বাড়ায় তার শাশুড়ি। মমতাময়ী রূপে দেখা যায় কৃষ্ণাকে যে একসময় বৌমার মৃত্যু কামনা করেছিল। হাসপাতালে সৃজনের সাথে ছিল তার ভাই চয়ন এবং তার স্ত্রী রুচিরা। বাড়ির বড় জেঠু থেকে পর্নার শশুর। চিকিৎসকের পরামর্শ মত ওটিতে নিয়ে যাওয়া হয়।

এদিকে স্ত্রীকে মৃত্যুমুখে দেখে একপ্রকার বিকারগ্রস্ত হয়ে পড়ে সৃজন। হাসপাতালে রাধা কৃষ্ণের কাছে সে পর্নার প্রাণভিক্ষা চায়। এ পর্যন্ত সফল হয় অপারেশন। তবে চিকিৎসক জানেন ভেন্টিলেশনে আছেন জ্ঞান ফেরা অব্দি কিছুই বলা যাবে না। জ্ঞান ফিরবে পর্নার শুনে স্বস্তি ফিরে আসে দত্ত পরিবারে। বড় বিপদ থেকে রক্ষা পেয়েছে বাড়ির বউ। কিন্তু অজানা ভয় আশঙ্কা গ্রাস করে অয়ন এবং মৌমিতার মনে। পর্না যদি বেঁচে ওঠে তবে তারা পড়বে বিপদে।

আরও পড়ুন: Neem Phooler Madhu: পর্ণাকে ছাদ থেকে ফেলে দিল মৌমিতা! তবে কী এইবার নতুন ইনিংস শুরু পর্ণার জীবনে!

এই অবস্থায় মৌমিতা এবং অয়ন দুজনেই হাসপাতালে গেলেও নিজেদের সংযত রাখার চেষ্টা করে। সম্পূর্ণ ঘটনা প্রত্যক্ষদর্শী ছিল সুইটি তাকে মেরে ফেলার হুমকি দেয় অয়ন। হাসপাতাল থেকেই কোনোক্রমে সোজা ইশার বাড়িতে পদার্পণ করে অয়ন। ইশা তাকে জানিয়ে দেয় পর্না বেঁচে উঠলে অয়ন এবং মৌমিতা দুজনেই মরবে। সে কোনদিন কাউকে ছেড়ে দেবে না। মৌমিতা উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে পর্নাকে ছাদ থেকে ফেলে না দিলেও বিপদে পড়তে হবে তাদের। তাই রাতের মধ্যেই হাসপাতালের বেডে তাকে শেষ করে দিতে হবে। অয়নকে সময় দিয়ে দেয় ইশা। অয়ন প্রথমে ইতস্তত বোধ করলেও ধীরে ধীরে গোটা ঘটনা তার সামনে জলের মতন পরিষ্কার হয়। এবার কি তবে রাতের মধ্যেই পর্নাকে চিরতরে শেষ করে ফেলবে অয়ন-মৌমিতা! আদৌ কী মৌমিতা রাজি হবে অয়নের এই প্রস্তাবে। জানতে হলে চোখ রাখতে হবে নিম ফুলের মধুর সাসপেন্স এপিসোডে।

About Author
Neha Basu

বিগত প্রায় ২ বছর ডিজিটাল মিডিয়ার কাজের সঙ্গে যুক্ত। যে কোনো ধরনের জেনারেল নিউজ লেখায় পারদর্শী।