লেটেস্ট খবরবিনোদনভাইরাললাইফ স্টাইলরেসিপি

SSC Recruitment Case Verdict: সুদ সমেত ফেরত দিতে হবে বেতন! SSC দুর্নীতি মামলায় চাকরিহারা প্রায় ২৬ হাজার!

Published on:

SSC Recruitment Case Verdict: আজ SSC দুর্নীতি মামলার রায় নিয়ে তোলপাড় রাজ্য রাজনীতি। লোকসভা ভোটের আবহেই SSC দুর্নীতি মামলার রায় ঘোষণা করেছে কলকাতা হাইকোর্ট। এই রায়তে জোর ধাক্কা খেয়েছে চাকরিপ্রাপক ও রাজ্য সরকার। ২০১৪ সালের টেট ও ২০১৬ সালের এসএসসি পরীক্ষার মাধ্যমে যে সকল প্রার্থী নিয়োগ হয়েছিলেন তাদের নিয়োগ নিয়ে বারবারই দুর্নীতির অভিযোগ উঠে এসেছিল। এরপরই এই বিষয়ে মামলা দায়ের করা হয়। ২০১৪ সালের টেট পরীক্ষার মামলা এখনও হাইকোর্টের বিচারাধীন থাকলেও আজ ২০১৬ সালের SSC দুর্নীতি মামলার রায় ঘোষণা করেছে কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি দেবাংশু বসাক এবং বিচারপতি মহম্মদ শাব্বর রশিদির ডিভিশন বেঞ্চ।

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

SSC Recruitment Case Verdict By HC:

হাইকোর্ট জানিয়ে দিয়েছে এসএসসি প্যানেলের মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ার পরও যারা চাকরি পেয়েছেন তাদের চাকরি বৈধ নয়। যার কারণে ২৫ হাজার ৭৫৩ জনের চাকরি বাতিল করেছে হাইকোর্ট। শুধু চাকরি বাতিল হয়েছে এমনটা নয় জানানো হয়েছে চাকরি প্রাপকদের চার সপ্তাহের মধ্যে সুদসহ সমস্ত বেতন জেলা শাসকের কাছে ফিরিয়ে দিতে হবে। এরপর দু সপ্তাহের মধ্যে জেলাশাসক সেই সকল বেতন জমা করবে হাইকোর্টে। প্রাপ্ত বেতনে ১২ শতাংশ হারে চাকরি হারাদের সুর দিতে হবে। হাইকোর্ট জানিয়েছে, যে সকল ব্যক্তি সাদা খাতা জমা দিয়ে চাকরি পেয়েছিলেন তাদের ক্ষেত্রেও এই নির্দেশ সমানভাবে প্রযোজ্য হবে। হাই কোর্টের বিচারপতি বসাকের ডিভিশন বেঞ্চের পর্যবেক্ষণ অনুযায়ী, জনগণের টাকায় বেতন পেয়েছেন ওই চাকরিপ্রাপকেরা। তাই সেই বেতন তাঁদের ফিরিয়ে দিতে সঙ্গে সুদও দিতে হবে।

বিচারপতি দেবাংশু বসাক এবং বিচারপতি মোহাম্মদ সাব্বার ওসিদের ডিভিশন বেঞ্চ জানিয়েছে সিবিআই এসএসসি নিয়োগ দুর্নীতি মামলার তদন্ত জারি রাখবে এবং যখন যাকে প্রয়োজন তাকেই হেফাজতে নিতে পারবে সিবিআই। উচ্চ আদালতে তরফে এসএসসিকে ভোটের পর নতুন করে নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি ওএমআর সিট আপলোডের নির্দেশ দেওয়া দিয়েছে হাইকোর্ট।

আরও পড়ুন: Dona Ganguly: প্রথমবার পুরুষ রূপে মঞ্চে হাজির সৌরভ ঘরণী! ডোনার এই নাচ মুগ্ধ করবে আপনাকেও

এর আগেএসএসসি নিয়োগ দুর্নীতি মামলার দায়িত্বে ছিলেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় তার নির্দেশে চাকরি পাওয়া গিয়েছিল ৫০০০ জনের। এরপর চাকরি প্রাপকরা সুপ্রিম কোর্টে মামলা করলে সেই মামলা শীর্ষ আদালত থেকে হাইকোর্টের বিশেষ বেঞ্চে পাঠিয়ে ৬ মাসের মধ্যে বিচার শেষ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল সুপ্রিম কোর্টের তরফে। সেই মতোই এতদিন এসএসসি গ্রুপ-সি, গ্রুপ-ডি, নবম-দশম একাদশ-দ্বাদশ এর নিয়োগ সংক্রান্ত শুনানি চলছিল আর আজ হসেই মামলার রায় ঘোষিত হলো।

About Author
Neha Basu

বিগত প্রায় ২ বছর ডিজিটাল মিডিয়ার কাজের সঙ্গে যুক্ত। যে কোনো ধরনের জেনারেল নিউজ লেখায় পারদর্শী।

Leave a Comment