লেটেস্ট খবরবিনোদনভাইরাললাইফ স্টাইলরেসিপি

Viral: উত্তরপত্র জুড়ে লেখা ‘জয় শ্রীরাম’, ৬০% নম্বর নিয়ে নজিরবিহীন ফল ছাত্রের! তবে শেষ রক্ষা হল না

Published on:

Viral: লোকসভা ভোটের মরসুমে নজিরবিহীন ঘটনা। রামনাম জপছে গোটা দেশ। রামভক্তি বাদ গেল না পরীক্ষার খাতাতেও। এবার কলেজের পরীক্ষায় ‘জয় শ্রীরাম’ লিখে উতরে যাওয়ার নিদর্শন মিলল উত্তরপ্রদেশের একটি সরকারি কলেজে। অভিযোগ পরীক্ষার খাতায় ‘জয় শ্রীরাম’ লেখা ছাত্রদের ভাল নম্বর দিয়ে পাশ করিয়ে দেওয়া হয়েছে। এই ঘটনায় ইতিমধ্যেই কলেজের দুই অধ্যাপককে বরখাস্ত করা হয়েছে (Viral)।

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের জৌনপুরের বীর বাহাদুর সিংহ পূর্বাঞ্চল ইউনিভার্সিটিতে (Veer Bahadur Singh Purvanchal University)। ইউনিভার্সিটির প্রথম বর্ষের ছাত্ররা ভাল নম্বর পেয়ে পাশ করেছেন পরীক্ষায়। এ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে চিঠি লেখেন ছাত্রনেতা দিব্যাংশু সিংহ। চিঠি দেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ, রাজ্যপাল এবং উপাচার্যকে। চিঠিতে ওই ছাত্রনেতা অভিযোগ করেন কয়েকজন অধ্যাপক টাকার বিনিময়ে শূন্য পাওয়া পরীক্ষার্থীদের ৬০ শতাংশের বেশি নম্বর দিয়ে পাশ করিয়েছেন।

আরও পড়ুন: Arijit Singh Turban: কেন হঠাৎ পাগড়ি পরা শুরু করলেন অরিজিৎ সিং? জানলে চোখে জল আসবে আপনার

গত বছর অগস্ট মাসে RTI করেন দিব্যাংশু। প্রথম বর্ষের ফার্মেসির ১৮ জন ছাত্রের রোল নম্বর দিয়ে তাঁদের মার্কশিট পুনর্মূল্যায়ন করে দেখতে আবেদন জানান। বিষয়টিকে রাজভবনের তরফে তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয় গত বছর ২১ ডিসেম্বর। প্রকাশ্যে আসে, ১৮ জন পড়ুয়ার কেউ পরীক্ষায় শূন্য় পেয়েছিলেন, কারও প্রাপ্ত নম্বর ছিল মাত্র চার (Viral)।

তদন্ত শুরু করতে দেখা যায়, প্রশ্নের উত্তরে পড়ুয়াদের কেউ ‘জয় শ্রীরাম’ লিখে পাতা ভরিয়েছেন। কেউ বা লিখেছেন বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মা, হার্দিক পাণ্ড্যর মতো ক্রিকেটারদের নাম। কেউ আবার লিখেছেন হিন্দি গানের পঙ্‌ক্তি। কেউ আবার পাতা ভরিয়েছেন ধর্মীয় স্লোগানে। এসব লিখে পাতা ভরিয়েই কাঁড়ি কাঁড়ি নম্বর পেয়ে গিয়েছেন তারা।

আরও পড়ুন: Lakhsmir Bhandar Update: এইবার লক্ষ্মীর ভান্ডারে প্রতি মাসে ৩০০০ টাকা? কীভাবে করবেন আবেদন! জানুন বিস্তারিত

এই ঘটনায় নাম উঠে আসে বিনয় বর্মা এবং আশিস গুপ্ত নামের দুই অধ্যাপকের। এই সমস্ত নথি প্রমাণ সহ রাজ্যপালের কাছে জমা পড়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বন্দনা সিংহ জানিয়েছেন, পরীক্ষার খাতার লেখা এবং প্রাপ্ত নম্বরের মধ্যে গরমিল ধরা পড়েছে অভিযুক্ত ওই দুই অধ্যাপককে সাসপেন্ড করা হয়েছে। তাঁদের বিরুদ্ধে আরও কড়া পদক্ষেপ করা নিয়ে আলোচনা চলছে এই মুহূর্তে।

About Author
Adhrit Roy

বিগত প্রায় চার বছর ধরে ডিজিটাল মিডিয়ায় কাজের সঙ্গে যুক্ত। যেকোনো ধরণের জেনারেল নিউজ লেখায় পারদর্শী।